শুকনা মরিচ এর বর্ণনা


শেয়ার করুন

শুকনা মরিচ

উপকারিতা ও অপকারিতা

যার জন্য উপকারী কারণ
ডায়াবেটিস (Diabetes)

মরিচের প্রধান রাসায়নিক উপাদানের নাম ক্যাপসিসিন,যা  তীব্র ঝাল লাগার অনুভুতি সৃষ্টি করে থাকে।ক্যাপসিসিন নামক এই উপাদানটি  রক্তে সুগারের মাত্রা কমায়।

স্থূলতা (Obesity)

ক্যাপসিসিন লো এক ধরনের থার্মোজেনিক উপাদান যা বিপাক ক্রিয়াকে বৃদ্ধি করে এবং চর্বি ভাঙ্গন প্রক্রিয়াতে বিশেষ উপকরন হিসাবে কাজ করে।

ডায়াবেটিস নিউরোপ্যাথি

মরিচে যে ফাইটোকেমিকেল থাকে তা অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি হিসেবে কাজ করে ডায়বেটিস নিউরোপ্যাথি সম্পর্কিত ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

ক্যান্সার

এতে ফাইটোকেমিকেল প্রচুর পরিমানে আছে।ফাইটোকেমিকেল নামক এনজাইমের বিরূদ্ধে কাজ করে ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে,জ্যান্থিন অক্সিডেজ এমন একটি এনজাইম যা ফ্রি-র‍্যাডিকেল তৈরি করে ডিএনএ(DNA) এবং সেলুলার টিস্যু নষ্ট করে দেয়।

পাকস্থলির ক্ষত

মরিচ পাকস্থলির অভ্যন্তরীণ দেয়াল কে উদ্দীপিত করে এক ধরনের রস নিঃসন করতে সাহায্য করে এর মাধ্যমে পাকস্থলি ক্ষতিকর ব্যকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়।হজম এবং অন্ত্রের মাংস পেশির ক্রিয়াশীলতা স্বাভাবিক রাখে, যার ফলে হজমে সহায়ক এনজাইম নিঃসৃত হয় এবং খাবারের পুষ্টি সহজেই শোষিত হয়।

যার জন্য অপকারি কারণ
গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স ডিজিজ/ বুকজ্বালা (Gastroesophageal reflux disease)

   শুকনা মরিচ অধিক পরিমাণে গ্রহণের ফলে গ্যাস্ট্রো-ফাগিয়েল রিফ্লাক্স (GER) হতে পারে।

লিভার ক্যান্সার (Liver cancer)

  ]শুকনা মরিচে অ্যাফ্লাটোক্সিন নামক ক্ষতিকর যৌগ রয়েছে যা পাকস্থলী, যকৃত ও কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়।    

পাকস্থলীর ক্যান্সার (Stomach cancer)

শুকনা মরিচে অ্যাফ্লাটোক্সিন নামক ক্ষতিকর যৌগ রয়েছে যা পাকস্থলী, যকৃত ও কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়।    

ওরাল ক্যাভেটি, গলা ও পেটের সমস্যা

              ]যারা ওরাল ক্যাভেটি, গলা ও পেটের সমস্যায় ভুগছেন তারা অধিক পরিমাণে শুকনা মরিচ গ্রহণ করলে শরীরে      বিভিন্নধরণের প্রদাহ ও জ্বালা পোড়া দেখা দিতে পারে। সেক্ষেত্রে ঠাণ্ডা দই গ্রহণ করলে ভালো ফলাফল পাওয়া যেতে  পারে।     

কোলন ক্যান্সার

   ]শুকনা মরিচে অ্যাফ্লাটোক্সিন নামক ক্ষতিকর যৌগ রয়েছে যা পাকস্থলী, যকৃত ও কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়।    

সারমর্ম

পুষ্টিতথ্য

  • পরিবেশন আকার: ১০০ গ্রাম
  • পরিবেষনার ধরন: ২ কাপ

ক্যালরি: ৩১৩ কিলোক্যালরি

  • শর্করা: ৩৫.২ গ্রাম
  • ফ্যাট: ৬.২ গ্রাম
  • ভিটামিন সি: ৪৭.৪ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন এ: ৭৪৭ মাইক্রোগ্রাম
  • প্রোটিন: ১৫.৯ গ্রাম
  • পানি: ১০ গ্রাম

খাদ্য পুষ্টি

  • আঁশ: ২৬.৬ গ্রাম
  • ভিটামিন- বি-১ (থায়ামিন): ০.৯৩ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন- বি-২ (রিবোফ্ল্যাভিন): ০.৪৩ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন- বি-৩ (নায়াসিন): ৮.৭ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন- বি-৬: ২.৪৫ মিলিগ্রাম
  • ভিটামিন- ই: ১৯.৭১ মিলিগ্রাম
  • ফোলেট: ১০৬ মাইক্রোগ্রাম
  • বেটা-ক্যারোটিন: ৮৯৬০ মাইক্রোগ্রাম
  • সোডিয়াম: ৩০ মিলিগ্রাম
  • পটাসিয়াম (K): ২০১০ মিলিগ্রাম
  • ক্যালসিয়াম (Ca): ১৬০ মিলিগ্রাম
  • ফসফরাস (P): ২৯৩ মিলিগ্রাম
  • ম্যাগনেসিয়াম (Mg): ১৫২ মিলিগ্রাম
  • লৌহ: ২.৩ মিলিগ্রাম
  • জিংক (Zn): ২.৪৮ মিলিগ্রাম
  • তামা (Cu): ০.৩৭ মিলিগ্রাম
  • অ্যাশ: ৬.১ গ্রাম