ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার/ক্রনিক বাতজ্বর (Chronic rheumatic fever)

শেয়ার করুন

বর্ণনা

ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার/ক্রনিক বাতজ্বর এক ধরনের প্রদাহযুক্ত (Inflammatory) রোগ। গলার ইনফেকশন বা স্কারলেট ফিভারের চিকিৎসা ঠিক মতো করা না হলে এই রোগ দেখা দিতে পারে। গ্রুপ এ স্ট্রেপটোকক্কাস ব্যাকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হলে গলার ইনফেকশন বা স্কারলেট ফিভারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। সাধারণত ৫-১৫ বছরের শিশুদের ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার হয়ে থাকে। তবে ৫ বছরের কম বয়সের শিশুরা ও প্রাপ্তবয়স্করাও অনেক সময় এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে। ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার হৃদযন্ত্রে নানা ধরনের স্থায়ী সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে, যেমন- হার্ট ফেইলিওর ও হার্ট ভালভের ক্ষতিসাধন। সঠিক চিকিৎসা নেওয়ার মাধ্যমে ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভারে আক্রান্ত ব্যক্তি ব্যথা, প্রদাহের কারণে টিস্যুর ক্ষয় ও এই রোগের সাথে সম্পর্কযুক্ত অন্যান্য সমস্যা অনেকাংশে কমিয়ে ফেলতে পারেন। এছাড়া বারবার ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও চিকিৎসার মাধ্যমে প্রতিরোধ করা সম্ভব।

কারণ

স্ট্রেপটোকোকাস প্রোজেনিস বা গ্রুপ এ স্ট্রেপটোকক্কাস দ্বারা গলায় ইনফেকশনের জন্য রিউম্যাটিক ফিভার হতে পারে। গ্রুপ এ স্ট্রেপটোকক্কাস ত্বকে বা শরীরের অন্য অন্যান্য অংশেও ইনফেকশন সৃষ্টি করতে পারে। এই ধরনের ইনফেকশনের কারণেও অনেক ক্ষেত্রে রিউম্যাটিক ফিভার দেখা দিতে পারে। তবে গবেষকরা গলার সংক্রমণ ও রিউম্যাটিক ফিভারের সম্পর্কের ব্যাপারে সম্পূর্ণরূপে নিশ্চিত নন। তাদের ধারণা মতে, এই ধরনের ব্যাকটেরিয়া রোগীর শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার ক্ষতি করে থাকে। স্ট্রেপ ব্যাকটেরিয়ায় এক ধরনের প্রোটিন থাকে, যা শরীরের কিছু টিস্যুতে অবস্থিত প্রোটিনের অনুরূপ। তাই রোগ প্রতিরোধকারী কোষ অনেক সময় এই ব্যাকটেরিয়াকে আক্রমণ করার পাশাপাশি শরীরের কিছু টিস্যুকেও এই ব্যাকটেরিয়া হিসেবে গণ্য করে আক্রমণ করা শুরু করে। সাধারণত হৃৎপিণ্ড, সন্ধি (জয়েন্ট), কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্র (সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেম) ও ত্বকের টিস্যুতে এই ধরনের আক্রমণ সংঘটিত হয়। এই কারণে উক্ত স্থানগুলিতে প্রদাহের সৃষ্টি হতে পারে। 

লক্ষণ

এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে চিকিৎসকেরা নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি চিহ্নিত করে থাকেন:

চিকিৎসা

চিকিৎসকেরা এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের নিম্নলিখিত ঔষধগুলি গ্রহণ করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন: 

aspirin benzyl penicillin
erythromycin phenoxymethyl penicillin
prednisolone

চিকিৎসকেরা এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের নিম্নলিখিত টেস্টগুলি করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন: 

ই-এস-আর (এরাইথ্রোসাইট সেডিমেন্টেশন রেট) (ESR, Erythrocyte Sedimentation Rate)
ব্লাড সি/এস (Blood C/S)
ব্লাড কালচার (Blood culture)
ইকো কার্ডিওগ্রাম ২ডি (Echo cardiogram 2D)
ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম (ই-সি-জি) (Electrocardiogram, ECG)
এ-এন-এ/এ-এন-এফ (ANA/ANF)
এ-এস-ও টাইটার (ASO titre)
সি-আর-পি কোয়ালিটেটিভ/কোয়ান্টিটেটিভ (CRP qualitative/quantitative)
প্লেইন এক্স-রে (Plain x-ray)
থ্রোট কালচার (Throat culture)
রিউমাটয়েড ফ্যাক্টর (Rheumatoid Factor)

ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়

নিম্নে লিখিত বিষয়গুলি ক্রনিক বাতজ্বর হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি করে-

  • বংশগত কারণ: অনেক ব্যক্তি কিছু নির্দিষ্ট জিন বহন করার কারণে ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভার দ্বারা সহজে আক্রান্ত হন। পরিবারের কোন সদস্য (রক্ত সম্পর্কিত) ক্রনিক রিউম্যাটিক ফিভারে আক্রান্ত হয়ে থাকলে তার সন্তানদের এ রোগ হবার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।
  • স্ট্রেপ ব্যাকটেরিয়া (গলায় ইনফেকশন সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া): কিছু স্ট্রেপ ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সৃষ্ট ইনফেকশনের কারণেও রিউম্যাটিক ফিভার হতে পারে।
  • পরিবেশ: অতিরিক্ত জনবহুল ও ত্রুটিপূর্ণ পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থাযুক্ত স্থানে বসবাস করলে রিউম্যাটিক ফিভারের ঝুঁকি বেশি থাকে। তাছাড়া কোনো অঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবার অভাব থাকলে সেখানেও রিউম্যাটিক ফিভারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

যারা ঝুঁকির মধ্যে আছে

লিঙ্গঃ পুরুষদের মধ্যে এই রোগ নির্ণয় হওয়ার সম্ভাবনা ১ গুণ কম। নারীদের মধ্যে এই রোগ নির্ণয় হওয়ার গড়পড়তা সম্ভাবনা থাকে।

জাতিঃ কৃষ্ণাঙ্গ ও হিস্প্যানিকদের মধ্যে এই রোগ নির্ণয় হওয়ার সম্ভাবনা ১ গুণ কম। শ্বেতাঙ্গদের মধ্যে এই রোগ নির্ণয় হওয়ার গড়পড়তা সম্ভাবনা থাকে। অন্যান্য জাতির মধ্যে এই রোগ নির্ণয় হওয়ার সম্ভাবনা ২ গুণ বেশি। 

সাধারণ জিজ্ঞাসা

উত্তরঃ অ্যান্টিবায়োটিকের (বিশেষত পেনিসিলিন) উদ্ভাবন ও উন্নত স্বাস্থ্যসেবার কারণে উন্নত দেশগুলিতে রিউম্যাটিক ফিভারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা অনেকাংশে কমে গেছে। কারণ স্ট্রেপ্টোকক্কাস দ্বারা গলায় সৃষ্টি হওয়া ইনফেকশন এখন অধিকতর কার্যকারি উপায়ে নির্ণয় ও নিরাময় করা যায়।

উত্তরঃ আরোগ্য লাভ করার বিষয়টি আপনার রোগের জটিলতার উপর নির্ভর করছে। যেমন, পোস্ট স্ট্রেপটোকক্কাল গ্লোমেরুলোনেফ্রাইটিস নামক কিডনির সমস্যাটি অস্থায়ী। কিন্তু হৃৎপিণ্ডের ভাল্বের ক্ষতি স্থায়ী। অন্যন্যা সমস্যা সম্পর্কে জানতে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।

উত্তরঃ শুধু রিউম্যাটিক ফিভারের কারণে সাধারণত মৃত্যু হয় না। তবে এর কারণে নানা অঙ্গপ্রত্যঙ্গে যে ক্ষতিগুলি হয়ে থাকে, সেগুলির কারণে মৃত্যু হতে পারে। বিশেষত হৃৎপিণ্ডে সৃষ্টি হওয়া সমস্যাগুলি গুরুতর।

হেলথ টিপস্‌

নিম্নে লিখিত বিষয়গুলি অনুসরণ করে রিউম্যাটিক ফিভারের ঝুঁকি কমানো যেতে পারে-

  • চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
  • সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত সম্পূর্ণরূপে বিশ্রামে থাকতে হবে।
  • হাত ও মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করতে হবে।
  • ধূমপান ত্যাগ করতে হবে।
  • স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্যগ্রহন করতে হবে।

বিশেষজ্ঞ ডাক্তার

প্রফেসর ডা: মিনহাজ রহিম চৌধুরী

রিউম্যাটোলজি ( বাতরোগ) ( Rheumatology)

ডাঃ রওশন আরা স্বপ্না

রিউম্যাটোলজি ( বাতরোগ) ( Rheumatology)

প্রফেসর ডা: মুজিবুর রহমান

রিউম্যাটোলজি ( বাতরোগ) ( Rheumatology)

ডাঃ: মতিউর রহমান

রিউম্যাটোলজি ( বাতরোগ) ( Rheumatology)

ডা: শাহ হাবিবুর রহমান

রিউম্যাটোলজি ( বাতরোগ) ( Rheumatology)